27/09/2022 : 11:56 PM
BREAKING NEWS
আমার বাংলাদক্ষিণ বঙ্গপূর্ব বর্ধমানমেমারি

মূর্তি পুজোকে কেন্দ্র করে আদিবাসী সমাজের মধ্যে অশান্তিঃ মেমারির গৃহহীন পরিবারকে ফেরাল প্রশাসন

জিরো পয়েন্ট নিউজ, মেমারি,  ২৪ জুলাই ২০২২:


সর্ব ধর্মের মানুষ জানে আদিবাসীরা প্রকৃতির পূজারী। কিন্তু এখন বিভিন্ন জায়গায় আদীবাসী সমাজের কিছুজন মূর্তি পূজায় মেতে উঠেছে। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে পূর্ব বর্ধমান জেলার মেমারি থানার অন্তর্গত নিশিরাগড় পটলডাঙ্গা এলাকার বাসিন্দা বিশ্বনাথ মান্ডি বাড়ির মূর্তি পুজো কে কেন্দ্র করে। আর তাতেই আপত্তি আদিবাসী সমাজের মাঝি বাবা থেকে শুরু করে পাড়ার আদিবাসী মানুষদের।

এদিকে বিশ্বনাথ মান্ডির অভিযোগ তাকে ডাইন অপবাদ দিয়ে তার পরিবারসহ তাকে গত দু মাস বাড়ি ছাড়া করা হয়েছে। তার পরিবারে আছে বৃদ্ধা মা, দুই ছেলে, স্ত্রী, পুত্রবধূ ও নাতনি। গ্রাম ছেড়ে তিনি পরিবার নিয়ে অস্থায়ী ভাবে হুগলিতে থাকতেন। নিজের বাড়ী ফেরার জন্য
তাই তিনি প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন।

সূত্রের খবর একাধিকবার প্রশাসন চেষ্টা করেছিল বিশ্বনাথ মান্ডি ও তার পরিবার কে বাড়িতে ফিরিয়ে আনার। কিন্তু যে কোনো কারণেই বিশ্বনাথ মান্ডি ও তার পরিবার বাড়ি ফিরতে পারেননি।

শনিবার প্রশাসনের মধ্যস্থতায় ওই আদিবাসী পাড়ার মাঝি বাবা সহ আদিবাসী সমাজের মানুষদের সাথে নিয়ে ও বিশ্বজিৎ মান্ডি কে সামনাসামনি বসিয়ে একটি সুষ্ঠ সমাধান সূত্র বের করার চেষ্টা করা হলো। দীর্ঘ সময় ধরে চলে এই সমাধান সূত্র খোঁজার চেষ্টা। অবশেষে মিলল সমাধান সূত্র।

আদিবাসী পাড়ার মাঝি বাবা সহ আদিবাসী সমাজের মানুষরা চাই যে বিশ্বনাথ মান্ডি যেন মূর্তি পুজো না করে। কারণ আদিবাসী সমাজে মূর্তিপূজো নিষিদ্ধ। তারা প্রকৃতি পূজাতেই বিশ্বাসী।  সেইমতো এদিন বিশ্বনাথ মান্ডির বাড়ির ঘর থেকে সমস্ত দেবদেবীর মূর্তি আচারবিধি মেনে জলে বিসর্জন দেয়া হয় এবং বিশ্বনাথ মান্ডি ও তার পরিবারকে কে তার বাড়িতে ফিরিয়ে দেওয়া হলো।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে এদিন উপস্থিত ছিলেন পূর্ব বর্ধমান জেলা সদর দক্ষিণ এসডিও কৃষ্ণেন্দু মন্ডল, এসডিপিও সুপ্রভাত চক্রবর্তী, মেমারি থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সুদীপ্ত মুখার্জী, মেমারি এক নম্বর ব্লকের বিডিও ড. এ. এম ওয়ালিউল্লাহ, জয়েন্ট বিডিও অংশুমান ঘোষ সহ মেমারি থানার অন্যান্য আধিকারিকগণ এবং আদিবাসী সমাজের মানুষেরা।

যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এলাকায় মোতায়েন ছিল বিশাল পুলিশ বাহিনী ও র‍্যাফ। আলোচনা চলাকালীন বিভিন্ন সময় দেখা গেল উত্তেজনা। এবং সঙ্গে সঙ্গেই পরিস্থিতি শান্ত করতে দেখা গেল পুলিশ প্রশাসনকে। এদিকে বিশ্বজিৎ মান্ডি কে যে ডাইন অপবাদ দেয়া হয়েছিল তা মিথ্যা বলে দাবি করেন নিশিরাগড় পটলডাঙ্গা আদিবাসী সমাজের মাঝি বাবা সুখ চাঁদ মুর্মু। তিন আরও বলেন যেহেতু আমাদের সমাজের বিরোধী কিছু কার্যকলাপ করেছিলেন তাই তাকে ডাকা হয়েছিল কিন্তু তিনি আসতে উপস্থিত হননি।

পরবর্তী সময়ে যাতে কোন অশান্তি বাতাবরণ সৃষ্টি না হয় সেজন্য পুলিশ প্রশাসন যথেষ্টই সজাগ, কিন্তু এরই মাঝে স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে শনিবার বৈঠক শেষে বিশ্বনাথ মান্ডির পরিবারের ওপর চড়াও হয় ওই পাড়ারই বেশ কিছু আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষ।  আক এরই প্রতিবাদে ওই চড়াও হওয়া ব্যক্তিদের গ্রেফতারের দাবীতে অবরোধ করা হয় দেবীপুর বুলবুলিতলা রোড। অল্প কিছু সময় অবরোধ থাকার পর অবশেষে মেমারি থানার ওসি সুদীপ্ত মুখার্জীর আশ্বাসে ওঠে অবরোধ। এলাকায় রয়েছে যথেষ্ট উত্তেজনা।

Related posts

নির্বাচনী প্রচার তৃণমূল প্রার্থী মধুসূদন ভট্টাচার্যের

E Zero Point

মেমারিতে এস.এফ.আই.-এর পথ অবরোধ

E Zero Point

বর্ধমানে জেসিবি ধাক্কায় মৃত্যু সাইকেল আরোহীর

E Zero Point

মতামত দিন