07/08/2020 : 5:33 AM
জীবন শৈলী স্বাস্থ্য

দিনভর ঘরবন্দি! সচল থাকতে কী করণীয়?

রোজকার ব্যস্ততাতেই কিন্তু আমাদের বাধ্যতামূলক শরীরচর্চা হয়ে যায় অনেকটা। সুস্থ থাকতে এই নিয়মিত শরীরচর্চা বেশ জরুরি। তবে করোনা সংক্রমণ আটকাতে দেশজুড়ে জারি হয়েছে লকডাউন। অফিস-কাছারি-স্কুল-কলেজ তো বন্ধই, তার সঙ্গে সারা দেশ জুড়ে জরুরি পরিষেবা ছাড়া বাইরে বেরোনোই বন্ধ। এই অবস্থায় কীভাবে ফিট রাখবেন নিজেকে?
দেখে নেওয়া যাক বাড়িতে ২৪ ঘণ্টা থাকতে হলে কী কী ব্যায়াম করা দরকার
মেডিটেশন
কেয়ারেন্টাইন কাল রাতারাতি বদলে ফেলেছে আপনার রোজনামচা। এমন সময় মানসিক চাপ কমানোর জন্য অল্প সময় মেডিটেশন করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরপরই ফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ নিয়ে বসার আগে বা অন্য কারো সঙ্গে কথা বলার আগে মেডিটেশন করে নিন। চেষ্টা করুন শ্বাস-প্রশ্বাসের দিকে মনোনিবেশ করতে, এটি সমস্ত চিন্তাকে দূর করতে সহায়তা করবে। শুধু ১০ মিনিটের মেডিটেশন আপনাকে সারা দিন ভারসাম্যপূর্ণ এবং সক্রিয় রাখতে সহায়তা করবে।
ইনডোর ওয়াকিং
এসময় বাড়ির মধ্যেই স্বাচ্ছন্দ্যে নিজের ওয়াকিং সার্কিটটি তৈরি করতে পারে। হাঁটা এবং সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করা বা কোনো লম্বা জায়গায় টানা হাঁটা যেতে পারে। কোনো ছোট ঘরে থাকলেও এটা করা সম্ভব। একজন মাত্র দুই হাজার পা হাঁটলেই একদিনের জন্য যথেষ্ট যা করতে মাত্র ১০ মিনিট সময়ের প্রয়োজন হবে।
বারপিস
মাত্র দশ মিনিটের হাঁটা এবং পাঁচ মিনিটের বারপিস ব্যায়াম করেই শরীরের উপরের অংশ, পা এবং অন্যান্য অঙ্গ সচল রাখা সম্ভব। বারপিসকে অনেকে ‘ট্রিপল থ্রেট অ্যাটাক’ও বলে থাকে।
জাম্পিং স্কোয়াট
বারপিস ব্যায়াম করার পর একজন নিয়মিত ১০ মিনিট স্কোয়াট জাম্পিং করতে পারে। যা পুরো শরীর সচল করতে সহায়তা করবে। জাম্পিং স্কোয়াট শরীর ঘামায় এবং সতেজতা ফিরিয়ে আনে।
টেবিল টপ ক্রাঞ্চ
মাদুরের উপর শুয়ে টেবিল টপ ক্রাঞ্চ ব্যায়াম শুরু করুন। আপনার পা ৯০ ডিগ্রি কোণে উপরে রাখুন। কনুই বাঁকাতে হবে, হাত দুটি কানের পিছনে রাখুন। কেবল অ্যাবস ব্যবহার করে মাদুর থেকে সামান্য উপরে কাঁধ রেখে শ্বাস প্রশ্বাসের কার্যক্রম চালাতে হবে।
জাম্পিং জ্যাক
এই ব্যায়াম পুরো শরীরের উপরই প্রভাব ফেলে। এটি দ্রুত শরীরের অঙ্গ প্রত্যঙ্গ সক্রিয় করতে সহয়তা করে এবং মনকে প্রফুল্ল  রাখে। জাম্পিং জ্যাক একজনের নমনীয়তা, ওজন হ্রাস এবং মেজাজ ভাল করতে সহায়তা করে।
নি-সাপোর্ট পুশ-আপ
পুশ-আপ ব্যায়ামটি শুরুতে কঠিন মনে হতে পারে। তবে নি-সাপোর্টের মাধ্যমে এই ব্যায়াম অনেকটা সহজ হয়ে যায়। মাংসপেশী সচল করতে কেয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় এটি কার্যকর ব্যায়াম হতে পারে।
স্কিপিং  রোপ জাম্পিং বা স্কিপিং
রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখার জন্য বেশ কার্যকর এই ব্যায়ামটি। পুরো শরীর সক্রিয় করায় এই ব্যায়াম প্রতি মিনিটে প্রায় ১০ থেকে ১৫ ক্যালোরি ক্ষয় করে। জাম্পিং রোপের মাধ্যমে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক হয়, শ্বাস-প্রশ্বাসের উন্নতি এবং যকৃতের সক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
হাই নি
এই ব্যায়ামটির মাধ্যমে দৌড়ের গতিবৃদ্ধি এবং পেশীর সহিষ্ণুতা বৃদ্ধি পায়। উরুর মাংসের এবং শারীরিক সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্যেও এটি বেশ উপকারী।
সান স্যালুটেশন
একে সূর্য প্রণামও বলা হয়। সূর্যের প্রতি সম্মান এবং ভক্তি প্রকাশের একটি প্রাচীন পদ্ধতি এই ব্যায়ামটি। এই রীতি একবার সম্পন্ন করতে প্রায় ১৪ ক্যালরি ক্ষয় হয়। প্রতিদিন কমপক্ষে ১২ বার এটি করলে শরীরের সুস্থতা বজায় থাকে।

Related posts

লকডাউনে সন্তানের হাতে মোবাইল ফোন নয়, খেলার ছলে শরীরচর্চায় ব্যস্ত রাখুন ওদের

E Zero Point

রান্নাঘরঃ চিকেন স্ট্যু

E Zero Point

রান্নাঘরঃ ভেটকি মাছের পাতুরি

E Zero Point

মতামত দিন