01/10/2022 : 3:25 AM
BREAKING NEWS
আমার দেশআমার বাংলা

হেরে যাওয়ার পর কীভাবে মুখ্যমন্ত্রী ? প্রশ্ন অমিত মালব্যেরঃ উত্তর আছে সংবিধানে

জিরো পয়েন্ট নিউজ ডেস্ক৩ মে ২০২১:


পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্টতা নিয়ে জয় পেলেন মমতা ব্যানার্জির তৃণমূল কংগ্রেস। বাংলায় তৃতীয়বারের জন্য সরকার গড়বে তৃণমূল। কিন্তু হাড্ডাহাড্ডি লড়াই নন্দীগ্রামে। অবশেষে জয় তৃণমূল ত্যাগী বিজেপির শুভেন্দু অধিকারীর। পরাজয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। আর এই পরাজয় নিয়েই মন্তব্য করেছেন বিজেপ আইটিসেলের ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট অমিত মালব্য।

তিনি এক টুইটে বলেন, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী নন্দীগ্রামে হেরে যাবার পর কি করে মুখ্যমন্ত্রী হবেন? শুভেন্দু অধিকারীর কাছে তার নৈতিক হার হলো।

যদিও মমতা ব্যানার্জী এব্যাপারে বলেছেন তৃণমূল ২০০ বেশি আসনে জিতেছে। একটা আসনে হারা জেতা কোন ব্যপার নেই। নির্বাচন কমিশনের কাছে পুননির্বাচনের আবেদন করার ব্যপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ওখানকার মানুষের যে রায় দিয়েছেন তা তিনি মেনে নিচ্ছেন।

এমতাবস্থায় মমতা নন্দীগ্রামে হেরে গেলে তার টানা তৃতীয় মেয়াদে মুখ্যমন্ত্রী হওয়া সম্ভব কিনা সেটি নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

ভারতের সংবিধানের আর্টিকেল ১৬৩ ও ১৬৪ অনুযায়ী, কাউকে মুখ্যমন্ত্রী বা রাজ্যের মন্ত্রিপরিষদের সদস্য হতে চাইলে বিধানসভার সদস্য হতে হবে। ওই ধারায় বলা হয়েছে, রাজ্যের বিধানসভার সংখ্যাগরিষ্ঠ আইনপ্রণেতারাই মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচন করবেন। আরও বলা হয়েছে, টানা ছয় মাস  মন্ত্রী কিংবা মুখ্যমন্ত্রী থাকতে গেলে তাকে রাজ্যের কোনো একটি আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে আসতে হবে। অন্যথায় ১৮০ দিন পর তার পদ বাতিল হয়ে যাবে।

সংবিধানের এসব ধারা অনুযায়ী, মনে করা হচ্ছে তিনি অন্য কোনো একটি আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে আসতে ৬ মাস সময় পাবেন। সেক্ষেত্রে দলের কোনো এক সদস্যকে পদত্যাগ করে তার আসনটি শুন্য করে দিতে হবে। আর সেখান থেকেই নির্বাচনে জয়লাভ করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হতে পারবেন। সে হিসেবে স্বাভাবিকভাবে মমতাকেই তৃতীয় মেয়াদে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে পেতে পারে পশ্চিম বাংলার জনগণ।

 

Related posts

বিজেপির পথসভা মেমারিতে

E Zero Point

বর্ধমানের ঐতিহ্যবাহী শূলি পুকুরের নাম পরিবর্তন

E Zero Point

৭২ তম প্রজাতন্ত্র দিবস পালন মন্তেশ্বরে

E Zero Point

মতামত দিন