27/09/2022 : 9:29 AM
BREAKING NEWS
আমার বাংলাগুসকরাদক্ষিণ বঙ্গপূর্ব বর্ধমান

রক্তদান শিবিরের আয়োজন করল গুসকরা পৌরসভা

জিরো পয়েন্ট নিউজ – জ্যোতি প্রকাশ মুখার্জ্জী, মঙ্গলকোট, ৭ জুলাই ২০২১:


পৌরসভার কর্মী হিসাবে পৌর পরিষেবা দেওয়ার পরেও যে বৃহত্তর নাগরিক সমাজের প্রতি একটা দায়িত্ব ও কর্তব্য থেকে যায় সেটা প্রমাণ করলেন গুসকরা পৌরসভার তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের কর্মীরা। করোনা জনিত নিষেধাজ্ঞার কারণে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা সমস্যা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। ফলে বিভিন্ন ব্লাড ব্যাংকে রক্তের ঘাটতি দেখা যাচ্ছে। ফলস্বরূপ বিপদে পড়ছে মুমূর্ষু রুগীরা। এবার তাদের সমস্যা দূর করতে এগিয়ে এল এই সংগঠনের সদস্যরা।


গুসকরা পৌরসভার উদ্যোগে ও পরিচালনায় এবং তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের সক্রিয় সহযোগিতায় ৭ ই জুলাই গুসকরা বালিকা বিদ্যালয়ে এক স্বেচ্ছা রক্তদান শিবির অনুষ্ঠিত হয়। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ব্লাড ব্যাংক শাখার সহযোগিতায় এই শিবির থেকে ৫০ ইউনিট রক্ত সংগ্রহ করা হয়। মূলত শ্রমিক সংগঠনের সদস্যরা রক্তদান করেন। কয়েকজন মহিলা সদস্যকে রক্তদান করতে দেখা যায়। সংগৃহীত রক্ত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত শ্রমিক সংগঠনের সদস্য শতাধিক হলেও অনেকেই কিছুদিন আগেই রক্তদান করেছেন। এছাড়াও কয়েকজন রক্তদান করতে উপস্থিত হলেও নিয়মের বেড়াজালে তাদের রক্ত নেওয়া সম্ভব হয়নি।


রক্তদাতাদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য উপস্থিত ছিলেন গুসকরা পৌরসভার পরিচালন সমিতির চেয়ারপার্সন গীতা রানী ঘোষ, অন্যতম সদস্য রত্না গোস্বামী, কার্যনির্বাহী আধিকারিক অশোক কুমার কাঁড়ার, দেবাশীষ গোস্বামী, মধুসূদন পাল, গুসকরা বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সবিতা ঘোষ এবং প্রশাসক মণ্ডলীর অন্যতম সদস্য তথা গুসকরা শহর তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি কুশল মুখার্জ্জী সহ আইটি সেলের সদস্যরা। শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন সম্পাদক প্রবীর দাস, সহ সম্পাদক দেবব্রত শ্যাম, জগন্নাথ ব্যানার্জ্জী, কালীচরণ মুখার্জ্জী, তারক সাউ প্রমুখ।


রক্তদান শিবির শুরু হওয়ার আগে একটি ছোট্ট অনুষ্ঠান হয়। সেখানে করোনা কালে তাদের অবদানের কথা স্মরণ করে পুরসভার পক্ষ থেকে শহরের প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা ডাঃ শ্যামল দাস ও ডাঃ দেবতনু দত্তকে সম্বর্ধনা দেওয়া হয়।
প্রবীর বাবু বলেন – সমাজের প্রতি নিজেদের দায়বদ্ধতার তাগিদেই আমাদের সংগঠনের সদস্যরা পুরসভার উদ্যোগে সামিল হয়েছে। আগামী দিনেও আমরা পুরসভার পাশে থাকব।


অন্যদিকে কুশল বাবু বলেন – পুর পরিষেবার পাশাপাশি মুমূর্ষু মানুষ যাতে রক্ত সংকটে না পড়ে তার জন্য আমাদের এই উদ্যোগ। সক্রিয় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য তিনি তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের প্রতিটি কর্মকর্তা ও সদস্যদের ধন্যবাদ জানান।

Related posts

বর্ধমানে বাসে সংক্রমণ রোধে পলিথিনের পর্দা দুটি আসনের মাঝখানে

E Zero Point

তৃণমূল কংগ্রেসের মেগা রোড শোতে অভিনেত্রী রনিতা দাস

E Zero Point

দীর্ঘ ১৬ মাস বেতনহীন, বর্ধমানের জাতীয় শিশু শ্রমিক প্রকল্পের স্টাফরা

E Zero Point

মতামত দিন