07/12/2022 : 9:00 AM
BREAKING NEWS
আমার বাংলাদক্ষিণ বঙ্গপূর্ব বর্ধমানমেমারি

মেমারিতে কৃষক-স্বার্থে বিজেপির ডেপুটেশনঃ দেখা করলেন না কৃষি আধিকারিক

জিরো পয়েন্ট নিউজ, মেমারি, ৮ নভেম্বর ২০২২:


সোমবার রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় সার, বীজের মূল্যবৃদ্ধি, কালোবাজারী, রাজ্যে কৃষকের দূরাবস্থা নিয়ে এক প্রতিবাদ কর্মসূচির ডাক দেয় রাজ্য বিজেপি। সেই কর্মসূচী মোতাবেক ভারতীয় জনতা কিষাণ মোর্চা বর্ধমান শাখা ও মেমারি ১ ব্লক বিজেপির পক্ষ থেকে মেমারি কিষাণ মান্ডিতে মেমারি ১ ব্লক কৃষি আধিকারিকের কার্যালয়ে ডেপুটেশন দিতে যায়। কিন্তু মেমারি ১ ব্লক কৃষি আধিকারিক দেবশ্রী দত্ত মোদী উপস্থিত বিজেপি নেতা ও কর্মীদের সাথে দেখা না করেই অফিস থেকে চলে যান বলে অভিয়োগ করেন পূর্ব বর্ধমান জেলা বিজেপির সহ সভাপতি ও মেমারি বিধানসভার কনভেনার স্মৃতিকণা বসু।

এপ্রসঙ্গে মেমারি ১ ব্লক কৃষি আধিকারিক দেবশ্রী দত্ত মোদী জিরো পয়েন্টের প্রতিনিধিকে জানান, কোন কারণে ডেপুটেশন দিতে হলে নিয়মমাফিক আগে থেকে অফিসে জানাতে হয়। তিনি এব্যপারে আগাম জানতেন না। জরুরী প্রশাসনিক কাজে তিনি অফিসের বাইরে ছিলেন।

বিজেপি নেত্রী স্মৃতি কণা বসু জানান যে, রাজ্যের দলীয় কর্মসূচী ২৪ ঘন্টার নোটিশে করতে হয়েছে। আমরা মৌখিক ভাবে কৃষি দপ্তরের কর্মীকে ও মেমারি থানায় ডেপুটেশনের ব্যপারে জানিয়েছিলাম। কিন্তু কৃষি আধিকারিক সামান্য সৌজন্যতার প্রয়োজনবোধ করেননি, তিনি কথা না বলেই অফিস থেকে বেড়িয়ে যান। নিয়মমাফিক কৃষি আধিকারিকের অনুপস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের অন্য কোন আধিকারিক অথবা কর্মী ডেপুটেশনের কপি জমা নিতেই পারতেন কিন্তু সেটাও নেওয়া হয়নি। এটা গণতন্ত্রের হত্যা করা হচ্ছে আমাদের রাজ্যে।

বিজেপির এই ডেপুটেশনে বলা হয়, রাজ্যে কৃষক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত। বিশেষ করে আলু, ধান, ফুল, তামাক, সবজি, রেশম প্রভৃতি চাষীরা ক্ষতিগ্রস্ত। সরকারি পরিকাঠামো ভেঙে পড়েছে, কিষাণ মান্ডিগুলো দালালদের দখলে। ফসল সংরক্ষনের কোন পরিকাঠামো এখনও রাজ্যে গড়ে ওঠেনি। বর্তমানে রাজ্যজুড়ে সারের কালোবাজারীর ফলে রাসায়নিক সার দ্বিগুণ দামে কিনতে বাধ্য হচ্ছে। সারের কালোবাজারী রুখতে বিজেপির পক্ষ থেকে সারা রাজ্যজুড়ে এই ডেপুটেশন। অবিলম্বে সারের কালোবাজারী বন্ধের উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

বিজেপি নেত্রী স্মৃতি কণা বসু আরও জানান যে, সম্প্রতি মেমারিতে নকল সার বিক্রি করতে এসে ধরা পড়ছে। আবার পাঞ্জাবের বীজআলুর বস্তায় লোকাল আলু ভরা হচ্ছে। চাষীদের ঠকানো হচ্ছে থোদ মেমারিতেই।

এদিনের ডেপুটেশন কর্মসূচীতে  উপস্থিত ছিলেন, বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য সন্তোষ রায়, সদস্য কেকা সরকার, পূর্ব বর্ধমান জেলা বিজেপির সহ সভাপতি ও মেমারি বিধানসভার কনভেনার স্মৃতিকণা বসু সহ মেমারি বিধানসভার বিজেপি নেতা-কর্মীরা।


Related posts

মেমারিতে কালবৈশাখীর মৃদু প্রভাব, এখনও ব্যবস্থা না নিলে বিপদ মাথার উপরে

E Zero Point

বর্ধমানে বিজেপির কার্যালয়ে পুলিশি হানা, উত্তাল বনমসজিদ এলাকা

E Zero Point

আগস্ট এর সাপ্তাহিক লকডাউনে আসানসোলে পুলিশ কার্যরত

E Zero Point

মতামত দিন