20/09/2023 : 10:32 PM
অন্যান্য

লকডাউনের মধ্যেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে অশান্ত পুরসা

শেখ নিজাম আলমঃ গলসি থানার পুরসা গ্রামে আজ তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে বোমাবাজি হয়। তৃণমূল পার্টি অফিস থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের বাড়ীতেও বোমা পড়ে। লাঠি,টাঙি,তরোয়াল প্রভৃতি নিয়ে ছোটাছুটি করলে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে পুরসা গ্রামের সাধারণ মানুষ। পরে গলসি থানার পুলিশ এসে গ্রামের নিরীহ মানুষদেরকে মারধোর করে ধরে নিয়ে যায়। তারমধ্যে কেউ গৃহশিক্ষক, কেউ বা রোগী। এই ঘটনায় গ্রামের মানুষ তৃনমূল পার্টির প্রতি গর্জে ওঠেন। এটা প্রথম নয়, এর আগেও তৃনমূল পার্টি অফিস ভাঙচুর করেছে নিজেদের দলের লোকরাই। বোমার আঘাতে মহিলারাও আঘাত পেয়েছেন। নিরীহ ৩০ জনকে আজ ধরে নিয়ে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ গ্রামবাসী। তাদের বক্তব্য দলের নেতারা নিজের স্বার্থে ঝামেলা তৈরি করবে আর গ্রামের নিরীহ মানুষরা তার শাস্তি পাবে, এটা মেনে নেওয়া যায় না। গ্রামে পুলিশ ঘুরে বেরাচ্ছে। রোজার সময় ঘর ছেড়ে বাইরে পালাচ্ছেন বেশ কয়েকজন। তার উপর লক ডাউনে মানুষ আধ হাত বসে গেছে। তাই গ্রামের বুদ্ধিজীবী মানুষের বক্তব্য শাস্তি পেতে হলে তৃনমূল নেতারা শাস্তি পান। সাধারন নিরীহ মানুষ কেন? শান্ত গ্রামকে যারা অশান্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

 

অন্য দিকে তৃণমূলের ব্লক সভাপতি শেখ জাকির হোসেন গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কথা অস্বীকার করে বলেছেন, গ্রামের গোষ্ঠীর মধ্যে বিবাদের জেরে এই অশান্ত পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে পুলিশ তদন্ত করছে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Related posts

করোনা সংকটের মধ্যেই বর্ষা নিয়ে সুখবর দিল আইএমডি : কৃষিই এবার অর্থনীতির মূল ভিত্তি

E Zero Point

অভিনব পদ্ধতিতে মেমারি পুলিশের লকডাউন সচেতনতা

E Zero Point

২০২০র আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের মূল অনুষ্ঠান হবে লেহ্-তে

E Zero Point

মতামত দিন