28/11/2022 : 6:10 PM
BREAKING NEWS
আমার বাংলাদক্ষিণ বঙ্গপূর্ব বর্ধমানমন্তেশ্বর

ডাইনি অপবাদের মন্তেশ্বরের গ্রামে পৌঁছালেন বিজ্ঞানকর্মীর

আলেক শেখ, কালনা, ২০ জুনঃ প্রশাসনের আমন্ত্রণে  বৃহস্পতিবার ডাইনি নিয়ে বিবাদ তৈরি হওয়া গ্রামে পৌঁছালেন বিজ্ঞানকর্মীরা। গ্রামবাসীদের তারা বোঝান ডাইন, ভুত, প্রেতাত্মা বলে কিছু হয়না।  কোন কোন সময় কিছু  স্বার্থান্বেষী মানুষের স্বার্থসিদ্ধির জন্য সু-কৌশলে এসব হুজুগ তোলা হয়।  তাই এসবে কান দিতে নেই, দিলে সমাজে অস্থিরতা তৈরি হয়।  যেমন এই গ্রামেতে এই কান্ড ঘটেছে।  উল্লেখ্য পূর্ব বর্ধমান জেলার মন্তেশ্বর থানার মাঝেরগ্রামের  উত্তর পাড়ায় সরস্বতী সাঁতারা নামের এক বয়স্ক মহিলাকে  ডাইনি অপবাদ দেওয়া হয়। বলা হয় রাতের অন্ধকারে ওই মহিলা উলঙ্গ হয়ে গ্রামময় ঘুঙুর পায়ে দিয়ে নেচে বেড়ায়।  গ্রামবাসীরা সংগঠিত হয়ে তাঁর গোটা পরিবারকে  একঘরে করে রাখে। এমন কি ওই মহিলার ছেলে ও বৌমার  অভিযোগ প্রতিবেশীরা রাতে অস্ত্র হাতে আমাদের বাড়ির চারিপাশে রাতপাহারা বসায়।  আর তার পিছুনে রয়েছে  কাটোয়ার পলসা গ্রামের ধনঞ্জয় বৈরাগ্য নামের   এক সাধুর নিদান।  মন্তেশ্বর থানার অভিযোগ জানালে পুলিশ মঙ্গলবার রাতে নিদান দেওয়া সাধু ধনঞ্জয় বৈরাগ্য সহ পাঁচ জনকে গ্রেপ্তার করে। ধৃত পাঁচ জনকেই বুধবার কালনা আদালতে হাজির করানো হলে প্রত্যেককে বিচারক দের হাজার টাকা বন্ডে অস্থায়ী জামিন মঞ্জুর করেন। এই পদক্ষেপের পরে গ্রামে উত্তেজনা থাকায় কালনা মহকুমা শাসক পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের সাহায্য চান। তারই পরিপ্রেক্ষিতে বিজ্ঞানকর্মীরা মাঝেরগ্রামে গিয়ে হাজির হন। সেখানে  তারা মানুষের ভুল ভাঙানোর জন্য সচেতন করে তোলার চেষ্টা করেন। পাশাপাশি এই ঘটনার পিছুনে আসল রহস্য কি তাও খুঁজে বার করার চেষ্টা করেন। দেখা যায়  ডাইনি অপবাদে অভিযুক্ত বৃদ্ধার ছেলের সাথে গ্রামের এক প্রতিবেশী ব্যক্তির পারিবারিক বিবাদ রয়েছে দীর্ঘদিন। বিজ্ঞানকর্মীরা মনে করছেন– এই বিবাদই পরবর্তীতে ডাইনি অপবাদে রূপান্তরিত হয়েছে। এদিনকার এই কর্মসূচিতে  উপস্থিত ছিলেন– পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের পূর্ব বর্ধমান জেলা সম্পাদক আশুতোষ পাল, রামকৃষ্ণ নাগ, জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত শিক্ষক তাপস কার্ফা, সুবোধ সাহা, বৈদ্যনাথ হাঁসদা, তরুণ কর্মকার প্রমুখ।

Related posts

পুণ্যার্থীদের জলদানের সঙ্গে পরিবেশ স্বচ্ছতার বার্তা মেমারিতে

E Zero Point

রাজনীতিতে কদর্যভাষাঃ অরাজনৈতিক প্রতিবাদ পূর্বস্থলীতে

E Zero Point

বার্ধক্য ভাতা না পেয়ে চরম বিপাকে আদিবাসী বৃদ্ধা

E Zero Point

মতামত দিন