07/10/2022 : 11:21 AM
BREAKING NEWS
আমার দেশ

অক্সিজেন এক্সপ্রেসে ঝাড়খন্ড, ওড়িশা এবং গুজরাট এই তিন রাজ্য সবচেয়ে বেশি অক্সিজেন সরবরাহ করেছে

জিরো পয়েন্ট নিউজ ডেস্ক, দিল্লী, ২ জুন ২০২১:


অক্সিজেন এক্সপ্রেসে দেশের তিনটি রাজ্য ঝাড়খন্ড, ওড়িশা এবং গুজরাট থেকে সবচেয়ে বেশি অক্সিজেন সরবরাহ করা হয়েছে। এ পর্যন্ত, ঝাড়খন্ড থেকে ৮০২৫ মেট্রিকটন তরল মেডিকেল অক্সিজেন পাওয়া গেছে। এছাড়া ওড়িশা থেকে পাওয়া গেছে ৭১০২ মেট্রিকটন ও অক্সিজেন, গুজরাট থেকে পাওয়া গেছে ৬৩৮৪ মেট্রিক টন অক্সিজেন। এর পাশাপাশি, পশ্চিমবঙ্গ থেকে ১৩৬০ মেট্রিক টন, মহারাষ্ট্র থেকে ৪৮৮ মেট্রিক টন, ছত্রিশগড় থেকে ২১৮ মেট্রিক টন এবং অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে ১৬৪ মেট্রিক টন তরল মেডিকেল অক্সিজেন পাওয়া গেছে।

দেশে বর্তমান কোভিড-১৯ জনিত পরিস্থিতিতে ভারতীয় রেল অক্সিজেন এক্সপ্রেস মারফত তরল মেডিকেল অক্সিজেন বিভিন্ন রাজ্যে সরবরাহের প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখেছে। এ পর্যন্ত ভারতীয় রেল ১৪০৫ টি ট্যাংকার মারফত মোট ২৩৭৪১ মেট্রিক টন তরল মেডিকেল অক্সিজেন সরবরাহ করেছে।

মোট ৩৪৪ টি অক্সিজেন এক্সপ্রেস বিভিন্ন রাজ্যে অক্সিজেন সরবরাহ করে তাদের যাত্রা শেষ করেছে।

এর পাশাপাশি, ২২ টি ট্যাংকার মারফত ৬ টি অক্সিজেন ভর্তি এক্সপ্রেস যাতে ৪২০ মেট্রিক টন তরল মেডিকেল অক্সিজেন রয়েছে, তা বর্তমানে যাত্রা পথে রয়েছে।

অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, তেলেঙ্গানা এবং কর্নাটকে তরল মেডিকেল অক্সিজেন সরবরাহের পরিমাণ ২ হাজার মেট্রিকটন অতিক্রম করেছে।

বিগত ৩৯ দিন পূর্বে গত ২৪ এপ্রিল মহারাষ্ট্রে ১২৬ মেট্রিক টন অক্সিজেন সরবরাহ করে অক্সিজেন এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরু হয়। রাজ্যগুলির প্রয়োজনে সময়মতো অক্সিজেন সরবরাহ করাই ভারতীয় রেলের লক্ষ্য।

রেলের পক্ষ থেকে এ পর্যন্ত ১৫ টি রাজ্যে তরল মেডিকেল অক্সিজেন সরবরাহ করা হয়েছে। এই রাজ্যগুলির মধ্যে রয়েছে উত্তরাখণ্ড, কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, রাজস্থান, তামিলনাড়ু, হরিয়ানা, তেলেঙ্গানা, পাঞ্জাব, কেরালা, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, ঝাড়খন্ড, এবং আসাম।

এই ১৫ টি রাজ্যের ৩৯ টি শহরে অক্সিজেন সরবরাহ করা হয়েছে। এই শহর গুলির মধ্যে রয়েছে, উত্তরপ্রদেশের লখনৌ, বারানসী, কানপুর, বেরিলি, গোরখপুর এবং আগ্রা।

মধ্যপ্রদেশের সাগর, জব্বলপুর, কাটনি এবং ভোপাল।

মহারাষ্ট্রের নাগপুর, নাসিক, পুনে, মুম্বাই এবং সোলাপুর।

তেলেঙ্গানার হায়দ্রাবাদ। হরিয়ানার ফরিদাবাদ গুরগাঁও। দিল্লির তুঘলকাবাদ, দিল্লি ক্যান্টনমেন্ট এবং ওখলা।

রাজস্থানের কোটা এবং কনকপুর। কর্নাটকের বেঙ্গালুরু। উত্তরাখণ্ডের দেরাদুন। অন্ধপ্রদেশের নেল্লোর, গুন্টুর, তাদিপাত্রি এবং বিশাখা পত্তনম। কেরালার এরনাকুলাম। তামিলনাড়ুর তিরুভাল্লুর, চেন্নাই, তুতিকোরিন, কোয়েম্বাটুর এবং মাদুরাই। পাঞ্জাবের ভাতিন্ডা এবং ফিলাউর। আসামের কামরূপ এবং ঝাড়খন্ডের রাঁচি।

রেলের পক্ষ থেকে এই অক্সিজেন নেওয়া হচ্ছে পশ্চিমাঞ্চলের হাপা, বরোদা, মুন্ড্রা থেকে। পূর্বাঞ্চলের রাউরকেল্লা, দুর্গাপুর,, টাটানগর এবং আঙ্গুল থেকে। এরপর সেগুলি সরবরাহ করা হচ্ছে উত্তরাখণ্ড, কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, রাজস্থান, তামিলনাড়ু হরিয়ানা তেলেঙ্গানা, পাঞ্জাব, কেরালা, দিল্লি, উত্তর প্রদেশ এবং আসামের বিভিন্ন স্থানে।

Related posts

পশ্চাদপদ গোষ্ঠীর জন্য গুণমান সম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করতে সরকারের পদক্ষেপ

E Zero Point

কর্মহীনদের জন্য ডিজিট্যাল দক্ষতা

E Zero Point

শিক্ষক দিবসে রাষ্ট্রপতি ভার্চুয়ালি ৪৭ জন শিক্ষককে জাতীয় পুরস্কার দিলেন

E Zero Point

মতামত দিন