27/09/2022 : 10:32 AM
BREAKING NEWS
আমার বাংলাদক্ষিণ বঙ্গপূর্ব বর্ধমানমেমারি

অপ্রত্যাশিত ভাবে বাদ পড়লেন প্রাক্তণ ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্রিয় সামন্তঃ মেমারির পুরভোট সরগরম

জিরো পয়েন্ট নিউজ ডেস্ক৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২:


পৌর নির্বাচন ঘোষণা ঠিক পরেই পূর্ব বর্ধমান জেলার মেমারি পৌরসভা ১৬ টি ওয়ার্ডেই প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে দিয়েই শাসক দলকে চ্যালেঞ্জ জানাতে ভোট প্রচারে নেমে পড়েন সিপিএম নেতা কর্মী ও প্রার্থীরা। শাসক নেতৃত্ব বামেদের প্রার্থী ঘোষনার বিষয়টিকে তেমন গুরুত্ব দিতে না চাইলেও বিধায়কের তৈরি করা প্রার্থী তালিকা নিয়ে তুমুল জল্পনা শুরু হয়ে যায় মেমারি শহরের পাশাপাশি তৃণমূলের অন্দরে।


এদিন সব জল্পনা কে নস্যাৎ করে মেমারি পৌরসভা ১৬ টি ওয়ার্ডের তৃণমূল কংগ্রেসের চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হয়। মেমারি পৌরসভায় তৃণমূল কংগ্রেস বেশকিছু নতুন মুখ কে প্রার্থী করেছে। বাদ পড়েছে ১০ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর সুপ্রিয় সামন্তর মত দক্ষ সংগঠকও। এর আগে প্রশাসক বোর্ডের সদস্য থেকেও জনপ্রিয় নেতা সুপ্রিয় সামন্তকে বাদ দেওয়া হয়। যদিও অনেকেই প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে ছিলেন বাদ পড়েছেন তারাও। এমত অবস্থায় মেমারি পৌর নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী নিয়ে দলের অন্দরেই না ক্ষোভের সঞ্চার হয়। এমনই সিঁদুরে মেঘ দেখছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

আসুন জেনে নেওয়া যাক মেমারি পৌরসভার ১৬ টি ওয়ার্ডের কারা কারা হলেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী। ১ নং ওয়ার্ডে তাপস পাঁজা, ২ নং ওয়ার্ডে সেখ ইউসুফ, ৩ নং ওয়ার্ড মহিলা সংরক্ষিত হয় এখানে প্রার্থী হয়েছেন সুচিত্রা ব্যানার্জী, ৪ নং ওয়ার্ডে সন্তোষ বোয়াল। ৫ নং ওয়ার্ডে ড. কৃষ্ণপদ বিশ্বাসকে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী করেছে। ৬. নং ওয়ার্ডে ড. চিরঞ্জিব ঘোষ
৭ নম্বর ওয়ার্ড টিও মহিলা সংরক্ষিত হওয়ায় এখানে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী করেছে রত্না দাস কে
৮ নম্বর ওয়ার্ডও মহিলা সংরক্ষিত হওয়ায় এখানে প্রার্থী হয়েছেন চুমকি বাগ (সোনালি)


৯ নং ওয়ার্ডে বাপি ব্যানার্জী, ১০ নং ওয়ার্ডে গত পৌর নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী ছিলেন এবং জয়ী হয়েছিলেন সুপ্রিয় সামন্ত। এবারে সুপ্রিয় সামন্তকে সরিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস ১০ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী করেছে স্বপন ঘোষালকে। ১১ নং ওয়ার্ডে বিলকিস সেখ, ১২ নং ওয়ার্ডে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী করেছে মেমারি পৌরসভা প্রাক্তন চেয়ারম্যান স্বপন বিষয়ীকে। গত পৌর নির্বাচনে স্বপন বিষয়ী সাত নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী হয়েছিলেন এবং জয়ী হয়েছিলেন। ১৩ নং ওয়ার্ডে পদ্মা ক্ষেত্রপাল, ১৪ নং ওয়ার্ডে রণজিৎ বাগ, ১৫ নং ওয়ার্ডে মানসুরা বেগম সেখ, ১৬ নং ওয়ার্ডে সুনীল মুর্মু।

 

Related posts

বর্ষার মুখেই পান্ডুয়া পঞ্চায়েতের সামনে রাস্তা জলমগ্ন, প্রশাসন নির্বিকার

E Zero Point

আগামী প্রজন্মের স্বার্থে বৃ্ক্ষরোপন

E Zero Point

বজ্র বিদ্যুৎ সহ কলকাতা-দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় বৃষ্টি, প্রবল বৃষ্টিতে ভাসবে গোটা রাজ্য

E Zero Point

মতামত দিন