30/11/2022 : 4:17 AM
BREAKING NEWS
আজাদি কা অমৃত মহোৎসবআমার দেশট্রেন্ডিং নিউজ

আজাদি কা অমৃত মহোৎসব – বর্তমান প্রজন্মের কাছে অমৃতসম

জিরো পয়েন্ট নিউজ ডেস্ক, এম.কে হিমু,  ১৩ জুন ২০২২:


আজাদি কা অমৃত মহোৎসব হল স্বাধীনতার ৭৫ বছর উদযাপন ও স্মরণ করার জন্য ভারত সরকারের একটি উদ্যোগ গ্রহণ করছে।যার মূল লক্ষ্য ভারতের জনগণকে তার সংস্কৃতি এবং স্বাধীনতা অর্জনের গৌরবময় ইতিহাসকে স্মরণ করা এবং বর্তমান প্রজন্মকে জানানো।আজাদি কা অমৃত মহোৎসবের আনুষ্ঠানিক যাত্রা ১২ মার্চ ২০২১-এ শুরু হয়েছিল। যা আমাদের স্বাধীনতার ৭৫ তম বার্ষিকীতে ৭৫-সপ্তাহের কাউন্টডাউন এবং আগামী ১৫ই আগস্ট ২০২৩-এ এক বছর পরে শেষ হবে।

এ বিষয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তার বক্তব্যে জানান, আজ সকালে যখন আমি দিল্লি থেকে রওনা হয়েছি, তখন একটা অদ্ভূত সংযোগ হয়, অমৃত মহোৎসবের শুভ সূচনার আগেই আজ দেশের রাজধানীতে অমৃত বর্ষা হয়, আর বরুণদেব আশীর্বাদ করেন। এটা আমাদের সকলের সৌভাগ্য যে আমরা স্বাধীন ভারতের এই ঐতিহাসিক সময়ের সাক্ষী হচ্ছি। আজ ডান্ডি যাত্রার বর্ষপূর্তি উপলক্ষে ‘বাপুজি’র এই কর্মস্থলে আমরা ইতিহাস গড়ে উঠতে দেখছি আর নিজেরা ইতিহাসের অংশ হয়ে উঠছি। স্বাধীনতার অমৃত মহোৎসবের শুভ সূচনা হচ্ছে। আজ প্রথমদিন। অমৃত মহোৎসব ১৫ আগস্ট, ২০২২ থেকে ৭৫ সপ্তাহ আগে আজ শুরু হয়েছে, আর ১৫ আগস্ট ২০২৩ পর্যন্ত চলবে। আমাদের শাস্ত্রে কথিত আছে, কখনও কখনও এমন সময় আসে যখন সমস্ত তীর্থের একসঙ্গে সঙ্গম হয়। আজ একটি দেশ রূপে ভারতের জন্যও এরকমই একটি পবিত্র সুযোগ। আজ আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের যত পূণ্যতীর্থ, যত পবিত্র কেন্দ্র সব এই সাবরমতী আশ্রমের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে।

স্বাধীনতা সংগ্রামের স্মৃতি বিজড়িত আন্দামানের সেলুলার জেল, অরুণাচল প্রদেশের অ্যাংলো-ইন্ডিয়ান যুদ্ধের সাক্ষী কেকর মোনিঙ্গ-এর মাটি, মুম্বাইয়ের আগস্ট বিপ্লবের ময়দান, পাঞ্জাবের জালিয়ানওয়ালা বাগ, উত্তরপ্রদেশের মীরাট, কাকোরি এবং ঝাঁসি। সারা দেশের এরকম অনেক স্থানে আজ একসঙ্গে এই অমৃত মহোৎসবের শুভ সূচনা হচ্ছে। মনে হচ্ছে যেন স্বাধীনতার অসংখ্য লড়াই, অসংখ্য আত্মোৎসর্গ আর অসংখ্য মানুষের তপস্যার প্রাণশক্তি ভারতে একসঙ্গে পুনর্জাগ্রত হচ্ছে। আমি এই পূণ্য অবসরে শ্রদ্ধেয় ‘বাপুজি’র চরণে আমার শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করছি। আমি দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়া, দেশকে নেতৃত্ব প্রদানকারী সমস্ত মনীষীদের চরণে সাদর প্রণাম জানাই, তাঁদেরকে কোটি কোটি প্রণাম জানাই। আমি সেই বীর সৈনিকদের প্রণাম জানাই যাঁরা স্বাধীনতার পরও দেশ রক্ষার পরম্পরাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন, দেশকে রক্ষা করতে গিয়ে সর্বোচ্চ বলিদান দিয়েছেন, শহীদ হয়েছেন। যে পূণ্যাত্মারা স্বাধীন ভারতের পুনর্নিমাণে উন্নয়নের প্রতিটি ইঁট গেথেছেন, ৭৫ বছরে দেশকে এখানে নিয়ে এসেছেন, আমি তাঁদের সকলের চরণে প্রণাম জানাই।

ইতিহাস সাক্ষী আছে, কোনও দেশের গৌরব তখনই সঞ্জীবিত থাকে যখন তা নিজের আত্মাভিমান এবং বলিদানের পরম্পরা পরবর্তী প্রজন্মকেও শেখায়। যখন শিষ্টাচার প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে সঞ্চারিত হয়। কোনও দেশের ভবিষ্যৎ তখনই উজ্জ্বল হয়, যখন নিজেদের অতীতের অভিজ্ঞতা ও ঐতিহ্যের গর্বের সঙ্গে ওতোপ্রতোভাবে জড়িয়ে থাকে। আর ভারতের তো গর্ব করার জন্য অফুরন্ত ভাণ্ডার আছে, সমৃদ্ধ ইতিহাস আছে, চেতনা সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক বৈভব আছে। সেজন্য স্বাধীনতার ৭৫ বছর উদযাপনের এই সুযোগ বর্তমান প্রজন্মের কাছে অমৃতসম হয়ে উঠবে। এ এমন অমৃত যা আমাদের প্রতি মুহূর্তে দেশের জন্য বাঁচতে, দেশের জন্য কোন কিছু করতে প্রেরণা জোগাবে।

জিরো পয়েন্ট আজাদি কা অমৃত মহোৎসবের এই যাত্রায় পা মিলিয়েছে। জিরো পয়েন্ট তার পাঠক-পাঠিকা সহ সকল ভারতবাসীর জন্য এই মহৎ উদ্যোগক সফল করার জন্য সচেষ্ট। আসুন সকলে মিলে আজাদি কা অমৃত মহোৎসব পালন করি। আপনিও অংশগ্রহণ করতে পারেন এই আজাদি কা অমৃত মহোৎসবে। আপনার এলাকার কোন স্বাধীনতা সংগ্রামী সম্পর্কে জানা থাকলে তার সম্পর্কে লিখে পাঠান আমাদের জিরো পয়েন্ট এর ইমেইল অথবা ওয়াটসঅ্যাপে আমরা তা প্রকাশ করবো আমাদের ওয়েবসাইটে।

 

Related posts

দেশে আমদানি ও রপ্তানি ক্ষেত্রে ইতিবাচক দিক দেখা যাচ্ছেঃ পীযূষ গোয়েল

E Zero Point

বিশ্বের বৃহত্তম স্টার্টআপ ব্যবস্থাপনা আমাদের দেশে রয়েছেঃ প্রধানমন্ত্রী

E Zero Point

২০২০-২১ অর্থবর্ষে লক্ষ্য পূরণের বিবরণ পেশ করে ভারত সরকারের সঙ্গে সমঝোতাপত্র স্বাক্ষর রাষ্ট্রায়ত্ত পিএফসি সংস্থার

E Zero Point

মতামত দিন