29/09/2022 : 1:36 PM
BREAKING NEWS
Top Newsআমার বাংলাদক্ষিণ বঙ্গপূর্ব বর্ধমানমেমারি

আশাকর্মীর চাকরির জন্য ৫৫ হাজার টাকা নেওয়ার অভিযোগ পঞ্চায়েত কর্মী ও সদস্যার বিরুদ্ধেঃ মেমারিতে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা স্বামীর

জিরো পয়েন্ট নিউজ ডেস্ক, মেমারি,  ১৬ অগাষ্ট ২০২২:


রাজ্যে তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর তৃণমূল সরকারের বিভিন্ন শীর্ষস্থানীয় নেতারা দুর্ণীতির অভিযোগে জেরবার। এবার সেই দুর্ণীতির শিকর পৌঁছে গেছে তৃণমূলের নীচুতলার নেতা কর্মীদের মধ্যে।  মেমারিতে আশাকর্মীর চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নাম করে ৫৫ হাজার টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মেমারি ১ পঞ্চায়েত সমিতির অন্তর্গত দুর্গাপুর অঞ্চলের তৃণমূল কর্মী ও পঞ্চায়েত কর্মী শুভঙ্কর মজুমদার ও ১৮ নং সংসদের অঞ্চল সদস্যা মনিকা রায়ের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার সকালে বড়ল গ্রামের বাসিন্দা রাজকুমার হাজরা বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরিবারের লোকজন তাকে মেমারি গ্রামীন হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসার পর তিনি এখন সুস্থ আছেন। রাজকুমার হাজারার সাথে কথা বলে জানা যায়, তিনি একজন তৃণমূল কর্মী। দুর্গাপুর অঞ্চলের বড়ল গ্রামের তৃণমূল কর্মী শুভঙ্কর মজুমদার ও মনিকা রায়ের হাত ধরে তিনি তৃণমূলে আসেন। তাদের কাছ থেকে তিনি জানতে পারেন তাদের গ্রামে আশাকর্মী নিয়োগ হবে। তিনি একজন দিনমজুর। স্ত্রী, দুই সন্তান ও মা নিয়ে অভাবী সংসার। তার স্ত্রী সীমা হাজরার আশাকর্মীর চাকরীর জন্য ৫৫ হাজার টাকা দুর্গাপুর অঞ্চলের ভিআরএস কর্মী শুভঙ্কর মজুমদারকে তার বাড়িতে গিয়ে দিয়ে আসেন প্রায় দেড় মাস আগে।

রাজকুমার হাজরা জানান, প্রথমে শুভঙ্কর হাজরা তার কাছে ৭০ হাজার টাকা দাবী করেছিল। পরে ৫৫ হাজার টাকায় রফা হয়। এই টাকা তিনি লোন নিয়ে দিয়েছেন। চাকরীতো হয়নি উপরন্ত টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করছেন শুভঙ্কর হাজরা। লোনের তাগাদায় অতিষ্ট হয়ে মানসিক অবসাদে ভোগার কারণে বিষ খেয়েছেন। তিনি আরও জানান এ ব্যপারে তিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তার স্ত্রী দাবী করেন অভিযুক্তকে কঠোর শাস্তি ও তার টাকা ফেরৎ দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

এব্যপারে দুর্গাপুর অঞ্চলের পঞ্চায়েত গ্রাম সম্পদ কর্মী শুভঙ্কর মজুমদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন।  তিনি আরও বলেন, তিনি একজন সামান্য কর্মী চাকরী দেওয়ার ক্ষমতা তার নেই, চাকরী দেওয়ার অধিকার সরকারের। নিশ্চয় কোথাও কিছু ভুল হচ্ছে। তবে তিনি রাজকুমার হাজরা কে চেনেন কিন্তু এরকম কেন অভিযোগ করেছে ও আত্মহত্যায় করার চেষ্টা কেন করেছে সে ব্যপারে তিনি কিছু জানেন না।

দুর্গাপুর অঞ্চলের পঞ্চায়েতের ১৮ নং সংসদের অঞ্চল সদস্যা মনিকা রায়ও এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন আমি একজন সামান্য সংসদ এটা আমার বিরুদ্ধে চক্রান্ত করা হয়েছে।

 

 

Related posts

বিয়ে করতে না চাওয়ায় আত্মঘাতী মেমারি কলেজের ছাত্রী

E Zero Point

নিশ্চিন্তে, নির্ভয়ে ভোটদানঃ গ্রামে গ্রামে রুটমার্চ কেন্দ্রীয় বাহিনীর

E Zero Point

আরামবাগ বিজেপির সাংগঠনিক সভা

E Zero Point

মতামত দিন