30/01/2023 : 8:23 PM
আমার বাংলাদক্ষিণ বঙ্গমগড়াহুগলি

ভ্যাকসিনের দুর্ভোগ থেকে বাসিন্দা দের মুক্তি দিতে পঞ্চায়েতের অভিনব ব্যাবস্থাপনা

জিরো পয়েন্ট নিউজ সুব্রত দে, মগরা, ১৩ মে ২০২১:


অতিমারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে আক্রান্ত আপামর ভারতবাসি যখন ভ্যাকসিনের দুটো ডোজ পাওয়ার জন্য হন্যে হয়ে আগের দিন রাত থেকে ভ্যাকসিন সেন্টারগুলির সামনে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকছে। সেই সময়ে মগরা ১ নং গ্রাম পঞ্চায়েতকে মানুষের দুর্ভোগ নিবারণে এক অভিনব উদ্যোগে সামিল হতে দেখা গেল।

বৃহস্পতিবার মগরা কর্মতীর্থ ভবনে গিয়ে দেখা গেল মানুষজন খুব সুষ্ঠভাবে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে ভ্যাকসিন নিচ্ছেন। একসঙ্গে কখনোই ত্রিশ-চল্লিশজন মানুষের বেশি ভীড় চোখে পড়লো না। আর সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয়টি হলো কাউকেই লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে না। প্রত্যেকের জন্য বসার চেয়ারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

নিঃসন্দেহে এ এক অসাধ্য সাধন। চতুর্দিকে যখন ভ্যাকসিন পাওয়া নিয়ে যখন মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই, সেই সময়ে এভাবে ভ্যাকসিন নেওয়ার সুযোগ পেয়ে, ভ্যাকসিন নিতে আসা সকলেই খুব আনন্দিত। কিভাবে এই অসাধ্য সাধন হলো? সেই বিষয়ে জানা গেল।

মগরা ১ নং গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় যে সমস্ত ব্যক্তির প্রথম ডোজ নেওয়ার পর ৪২ দিন অতিক্রান্ত হয়ে গিয়েছে তাদের এলাকার পঞ্চায়েত সদস্য বা আশা কর্মীরা তাদের কাছ থেকে আগেই প্রথম ডোজ নেওয়ার প্রমাণপত্র সংগ্রহ করে রাখছেন। তারপর অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে পর্যায়ক্রমে তাদের ভ্যাকসিন সেন্টারে ডাকা হয়েছে।

প্রতিটি এক ঘন্টার স্লটে ত্রিশজন করে আসতে বলা হচ্ছে। ফলে কখনোই একসঙ্গে বেশি মানুষের জমায়েত হচ্ছে না। আর ভ্যাকসিন সেন্টারে উপস্থিত থেকে সম্পূর্ণ ব্যবস্থাটি নির্বাহ করতে সহায়তা করছেন পঞ্চায়েত সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবকেরা।

মগরা ১ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান রঘুনাথ ভৌমিক স্বয়ং উপস্থিত থেকে ব্যবস্থাপনার তদারকি করছেন। তিনি আমাদের জানলেন ,”মানুষের কষ্ট লাঘবের উদ্দেশ্যেই আমাদের এই পদক্ষেপ। অনেক বৃদ্ধ ও অশক্ত মানুষ আমাদের কাছে আবেদন করেছিলেন যাতে ভ্যাকসিন নেওয়ার একটি সুষ্ঠ বন্দোবস্ত তাদের জন্য করা যায়।” তিনি এই উদ্যোগকে সফল করতে সকলের সহযোগিতা প্রার্থনা করলেন।


বৃহস্পতিবার একশ জনকে এই পদ্ধতিতে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। বহু বয়স্ক, অসুস্থ মানুষদের আজ ভ্যাকসিন নিতে দেখা যায়। প্রত্যেকেই এই ব্যবস্থাপনায় অত্যন্ত সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

Related posts

মেমারি সিপিআইএম পার্টির পক্ষ থেকে করোনা সচেতনতা মূলক প্রচার অভিযান

E Zero Point

টানা বর্ষনের কারনে বর্ধমানে ভেঙে পরলো বাড়ি

E Zero Point

পরিযায়ী শ্রমিকের বাচ্চাদের বই বিতরণ

E Zero Point

মতামত দিন