29/09/2022 : 3:53 AM
BREAKING NEWS
অন্যান্য

কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী দিল্লিতে নবম এবং দশম শ্রেণীর জন্য বিকল্প পাঠক্রমের ক্যালেন্ডার প্রকাশ করেছেন

কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী শ্রী রমেশ পোখরিয়াল ‘নিশাঙ্ক’ আজ নতুন দিল্লিতে মাধ্যমিক পর্যায়ের নবম ও দশম শ্রেণীর বিকল্প পাঠক্রমের ক্যালেন্ডার প্রকাশ করেছেন।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, এই ক্যালন্ডারে বিভিন্ন প্রযুক্তিগত উপায় এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলির ব্যবহার সম্পর্কে শিক্ষকদের নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে, যাতে এই সময়ে বাড়িতে থেকে মজাদার, আকর্ষণীয় উপায়ে শিক্ষকেরা শিক্ষার্থী, অভিভাবক এমনকি  অন্য শিক্ষকদেরও শিক্ষাদান করতে পারেন। তবে শিক্ষার্থী, অভিভাবক এমনকি অন্য শিক্ষকরা যাতে মোবাইল, রেডিও, টেলিভিশন, এসএমএস এবং বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলির সাহায্যে খুব সহজেই এই শিক্ষা পেতে পারেন তাও বিবেচনার মধ্যে রাখা হয়েছে।

শ্রী পোখরিয়াল আরও বলেছেন যে, আমাদের অনেকের মোবাইলে ইন্টারনেট সুবিধা নাও থাকতে পারে বা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যেমন-হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক, ট্যুইটার, গুগল ইত্যাদি ব্যবহার নাও করতে পারেন। তাই বিষয়টি মাথায় রেখে এই নির্ঘন্টে  শিক্ষকদের মোবাইল ফোনে এসএমএসের মাধ্যমে বা ভয়েস কলের মাধ্যমে অভিভাবক এবং শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদান পরিচালনা করার কথা বলা হয়েছে। অভিভাবকরা প্রাথমিক পর্বে শিক্ষার্থীদের এই ব্যবস্থাপনায় সহয়তা করবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।

মন্ত্রী জানান, একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণীর বিষয় ভিত্তিক বিকল্প শিক্ষাদান সংক্রান্ত ক্যালেন্ডার খুব শীঘ্রই প্রকাশ করা হবে। এটি দিব্যাঙ্গ শিশু সহ সমস্ত শিশুর চাহিদা পূরণ করবে। আগামী দিনে অডিও বই, রেডিও প্রোগ্রাম, ভিডিও প্রোগ্রামের লিঙ্কও অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

শ্রী পোখরিয়াল বলেন যে, এই নির্ঘণ্টে পাঠ্যক্রম বা পাঠ্যপুস্তক থেকে নেওয়া বিষয় বা অধ্যায়ের উল্লেখ সহ বিভিন্ন কার্যক্রম সমন্বিত সপ্তাহব্যাপী পরিকল্পনা তুলে ধরা হয়েছে।  তিনি বলেছেন যে, ক্যালেন্ডারের কার্যকলাপ এমন ভাবে সাজানো হয়েছে যাতে যে কোন রাজ্য অথবা কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলের বাচ্চারা পাঠ্যপুস্তকগুলি ব্যবহার করে সঠিক শিক্ষা অর্জন করতে পারে।

মন্ত্রী জানিয়েছেন যে, কলা শিক্ষা, শারীরির শিক্ষা, যোগ এর মতো পরীক্ষামূলক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম এতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তিনি আরও জানান যে এই ক্যালেন্ডারে শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের মধ্যে চাপ এবং উদ্বেগ হ্রাস করার কৌশলগুলিকেও স্থান দেওয়া হয়েছে।

এনসিইআরটি ইতিমধ্যে টিভি চ্যানেল স্বয়ম প্রভা (কিশোর মঞ্চ) এর মাধ্যমে শিক্ষার্থী, অভিভাবক এবং শিক্ষকদের মধ্যে সরাসরি পারস্পরিক আলাপচারিতা শুরু করেছে। প্রাথমিক শ্রেনীর জন্য সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত, উচ্চ প্রাথমিক শ্রেণীর জন্য  দুপুর ২ টা থেকে বিকাল ৪ এবং মাধ্যমিক শ্রেণীর ক্ষেত্রে সোমবার থেকে শনিবার প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে এগারোটা পর্যন্ত এই আলোচনা প্রচার করা হচ্ছে। দর্শকের সাথে আলাপচারিতার  পাশাপাশি, পাঠদানের বিষয়গুলিও এই লাইভ সেশনে প্রদর্শিত হচ্ছে। এই ক্যালেন্ডারটি এসসিইআরটি / এসআইই, শিক্ষা অধিদপ্তর, কেন্দ্রীয় বিদ্যালয় সংস্থা, নবোদায়া বিদ্যালয় সমিতি, সিবিএসই, রাজ্য স্কুল শিক্ষা বোর্ডের সাথে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে বৈঠকে ঠিক করা হয়েছে।

এই ব্যবস্থাপনা কোভিড -১৯ এর মোকাবিলায়  ইতিবাচক ভূমিকা পালন করবে। শিক্ষার্থী, শিক্ষক, বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ এবং পিতামাতাকে ঘরে বসে অন-লাইনে শিক্ষার সুযোগ গড়ে তুলবে।

প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত প্রাথমিক পর্যায়ে এবং ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত উচ্চ প্রাথমিক স্তরের বিকল্প শিক্ষাদান সংক্রান্ত ক্যালেন্ডার এপ্রিল মাসে প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

বিকল্প শিক্ষাদান সংক্রান্ত নির্ঘণ্ট জানতে দেখুন-
http://164.100.117.97/WriteReadData/userfiles/Academic%20Calender%20-%20Secondary%20-%20Eng..pdf

অথবা

http://164.100.117.97/WriteReadData/userfiles/Alternative%20%20Academic_Secondary-hindi.pdf

Related posts

~: আমরা দুঃখিত :~ কিছু টেকনিক্যাল সমস্যার জন্য প্রতিটি সংবাদে একই ছবি দেখা যাচ্ছে, খুব শীঘ্রই এই সমস্যার সমাধান করা হচ্ছে….

E Zero Point

বিশ্বের বাস্তবতার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই আমাদের পরিকল্পনা গ্রহন করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

E Zero Point

পল্লিমঙ্গল সমিতি ইঁট ভাটার শ্রমিকদের পাশে দাঁড়ালো

E Zero Point

মতামত দিন