19/07/2024 : 11:55 PM
অন্যান্য

মে ফ্লাওয়ার এবারও আমাদের অতিথি

দিগন্তিকা বোস

কোন ফুল সুবাস ছড়িয়ে আমাদের সুবাসিত করে। আবার কোন ফুল এর সুবাস না থাকলেও নিজের সৌন্দর্য দিয়ে প্রকৃতির সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করে। মে মাসের এই সময়ে কৃষ্ণচূড়া আর রাধাচূড়ার পাশাপাশি একটি নির্গন্ধি ফুল আমাদের চোখে স্বস্তি এনে দেয় । সেই সাথে নিঃসন্দেহে নজর কেড়ে নেয় , যার নাম ‘মে ফ্লাওয়ার’। লাল ও হলদেটে রঙের গোল , অপূর্ব সুন্দর এ ফুলটি ফোটে বছরের এক বার । এই ফুল শুধুই মে মাসেই ফোটে এবং মে মাসেই ঝরে যায় বলে এদেশে একে স্থানীয়ভাবে ‘মে ফ্লাওয়ার’ বা মে ফুল বলা হয়।


‘মে ফ্লাওয়ার’ এর দেশের বাড়ি আফ্রিকা মহাদেশে। ইংরেজি নাম ফায়ার বল লিলি, পাউডার-পুফ্ লিলি,আফ্রিকান ব্লাড লিলি, ক্যাথরিন হুইল, পয়জেন রোট ফুটবল লিলি। এর বৈজ্ঞানিক নাম Scadoxus multiflorus. সারা পৃথিবীতে এর তিনটি গোষ্ঠী রয়েছে।এপ্রিলের প্রথমে বৃষ্টির ছেঁয়া পেলেই মাটি ফুঁড়ে সবুজ রঙের মোটা ডাঁটা বা ডগা কলি সমেত বেরিয়ে আসে । ডগাটি প্রায় এক ফুট লম্বা হয়। মে মাস শুরু হলেই মূল থেকে পাতা গজায়। ছোট্ট সবুজ লম্বাকৃতির পাতা। এরপর কলি থেকে গজায় ফুল। লম্বা ডগার মাথায় অত্যন্ত সুন্দর গোলাকার মিষ্টি লাল ফুলটি ফুটে শোভা বর্ধন করে। অনেক সময় এপ্রিলের শেষ সপ্তায় ফুল ফোটা শুরু হয় এবং মে মাসের শেষ সপ্তাহের মাঝামাঝি ঝরে পড়ে। বছরে একবারই ফোটে এটি। একটি গাছের ফুল ১৫ থেকে ২০ দিন স্থায়ী হয়। ডিসেম্বরের দিকে গাছের গোড়া পচে মাটির সাথে মিশে যায়। দেখে মনে হয় যেন কিছু নেই বা ছিল না কখনোই। মাটির নিচে থাকা কন্দ থেকে আবার পরের বছর একই সময় ফুলটি ও গাছটি দেখা যায়। এ ফুলটি সচরাচর চোখে পড়ে না।
এই উদ্ভিদের স্ক্যাডক্সাস নামক শক্তিশালী কয়েকটি বিষাক্ত প্রজাতি রয়েছে । ক্রান্তীয় আফ্রিকার কিছু অংশে শিকারিরা তীরের ফলায় এবং মৎস্যশিকারে একে বিষ হিসেবে ব্যবহার করে আবার ঐতিহ্য বাহী ঔষধ হিসেবেও ব্যবহার করে। সাাারণত কন্দ থেকে বংশবৃদ্ধি করে। আকর্ষণীয় গড়ন ও সৌন্দর্য খুব সহজেই অন্য ফুল থেকে একে আলাদা করে।
কিছু তথ্য সুত্রঃ http://pza.sanbi.org/scadoxus-multiflorus-subsp-katharinae

Related posts

লকডাউনে ভারতীয়দের বিশেষ অনুরোধ করলেন বিশ্বের ক্ষুদ্রতম মহিলা

E Zero Point

জেলার জেলায় আমফানের তান্ডব, আগামী ৩ ঘণ্টায় ৯০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতিতে ঝড় বইবে পূর্ব বর্ধমানেও

E Zero Point

ছাগলের অস্বাভাবিক মৃত্যুর সন্দেহ গিয়ে পরেছিল ঠিকাদারের উপর, গালিগালাজ করায় গলা কেটে খুন করা হয় প্রৌঢ়াকে, পোলবা খুনে চাঞ্চল্যকর তথ্য

E Zero Point

মতামত দিন